February 24, 2024

৯টি গ্রহকে শান্ত রাখতে জপ করুন নবগ্রহ বীজ মন্ত্র

আজকে প্রায় প্রতিটি মানুষই কোন না কোন গ্রহ তারা ক্ষতিগ্রস্ত আমাদের জীবনের সকল প্রকার সুখ এবং দুঃখের পেছনে প্রত্যক্ষভাবে দায়ী থাকে এই নবগ্রহের কোন না কোন গ্রহ। গ্রহ গুলোর প্রভাবেও কারো জীবনে নেমে আসে চরম দুর্দশা। এই নবগ্রহকে শান্ত সবচেয়ে বড় এবং সবচেয়ে কার্যকরী উপায় হল নবগ্রহ বীজ মন্ত্র পাঠ। আজ আপনারা এখানে পড়বেন ৯ টি গ্রহ কে শান্ত রাখবার এবং তাদের দুষ্টু প্রভাবকে দূর করবার জন্য প্রতিটি গ্রহের বীজ মন্ত্র। সঙ্গে জানবেন কোন গ্রহ আমাদের জীবনে কি প্রভাব ফেলে এবং এই বীজ মন্ত্র গুলি কিভাবে পাঠ করলে আপনি খুব তাড়াতাড়ি ফল পাবেন।

রবি অথবা সূর্য বীজ মন্ত্র : সূর্য একটি নক্ষত্র হলেও জ্যোতিষ মতে সূর্য নবগ্রহের মধ্যে একটি গ্রহ। জ্যোতিষশাস্ত্র মতে গ্রহদের রাজা হলেন এই রবি গ্রহ বা সূর্য। জীবনের মান সম্মান মর্যাদা চাকরি বা ব্যবসা বা পেশায় উন্নতি এবং জীবনের সুখ ও সমৃদ্ধির জন্য প্রভাব ফেলে এই রবি গ্রহ। এই গ্রহের বীজ মন্ত্র ওঁ হ্রীং হ্রীং সূর্য্যায়ঃ । মন্ত্রটি সকালে সূর্য উদয়ের সময় স্নানের পর ৭০০০ বার জপ করার বিধান রয়েছে শাস্ত্রে। কিন্তু আপনার পক্ষে যদি এত বার জপ করা সম্ভব না হয় তাহলে ১০৮ বার জপ করুন। সকাল ১২ টার মধ্যে জব করা এই মন্ত্রের প্রশস্ত সময় এবং সপ্তাহের রবিবার অবশ্যই এই মন্ত্রটি জপ করবেন।

চন্দ্র বীজ মন্ত্র : চন্দ্র জ্যোতিষ মতে নবগ্রহের মধ্যে গুরুত্বপূর্ণ একটি গ্রহ। চন্দ্রের কুপ্রভাবে ব্যক্তির জীবনের সাংসারিক অর্থাভাব, দারিদ্রতা, মানসিক অস্থিরতা, মানসিক ও শারীরিক দুর্বলতা, বাবা মার অসুস্থতার মতো সমস্যা দেখা দেয়। তাদের সঙ্গে জাতকের মন প্রত্যক্ষভাবে সম্পর্কিত এই চন্দ্র। মনের কারক গ্রহ হল এই চন্দ্র।  চন্দ্র যে ব‍্যক্তির দুর্বল তার জীবনে নানা প্রকার মানসিক সমস্যা দেখা দেয়। এই চন্দ্রকে মজবুত করতে জব করুন চন্দ্রের বীজ মন্ত্র। চন্দ্রের বীজ মন্ত্র হল – ওঁ ঐং ক্লীং সোমায়ঃ । এই মন্ত্র শাস্ত্রে ১৫০০০ বার জপ করবার কথা বলা হলও এটি আপনি সন্ধ্যাবেলা ১০৮ বার জপ করলে পূর্ণ ফল পাবেন। এই মন্ত্র জপের প্রশস্ত সময় হল সন্ধ্যা ০৬ টা থেকে রাত ৯ টা পর্যন্ত। প্রতিদিন জপ করতে না পারলে সোমবার অবশ্যই এই মন্ত্র জপ করুন।

মঙ্গল বীজ মন্ত্র : নব গ্রহের মধ্যে যে ব্যক্তির মঙ্গল দুষ্ট তার মধ্যে সাহস এবং মানসিক শক্তি ও শারীরিক শক্তির অভাব দেখা দেয়। কারণ মঙ্গল হল সাহস ও শক্তির কারক গ্রহ। এই মঙ্গলের বীজ মন্ত্র হল – ওঁ হুং শ্রীং মঙ্গলায়ঃ । এই মন্ত্র ১০০০০ বার জপ করার বিধান রয়েছে শাস্ত্রে। সময়ের অভাব থাকলে সকালে স্নান সেরে আপনি ১০৮ বার করে এই মন্ত্র জপ করুন। শুধুমাত্র সপ্তাহের মঙ্গলবার জব করলেই এই মন্ত্রের অভীষ্ট লক্ষ্যে পৌঁছাতে সক্ষম হবেন। এই মন্ত্র পাঠের প্রশস্ত সময় হল সকাল ০৬ টা থেকে বেলা ১২ টা পর্যন্ত।

বুধ বীজ মন্ত্র : বুধ গ্রহ জীবনে উন্নতি ও প্রসিদ্ধির প্রতিনিধিত্ব করে। যাদের বুধ দুর্বল তারা জীবনে খুব একটা বেশি উন্নতি করতে সক্ষম হয় না এবং তাদের জীবনের প্রসিদ্ধিলাভ হয় না। তাদের জীবনে একাগ্রতার অভাব দেখা দেয় এবং ছাত্র ছাত্রীদের ক্ষেত্রে তারা লেখাপড়ায় দুর্বল হয়। বুধের বীজ মন্ত্র হলো ওঁ ঐং স্ত্রীং শ্রীং বুধায়ঃ। এই মন্ত্র জপের নিয়ম হলো ৯০০০ বার। তবে বুধবার সকাল থেকে বেলা বারোটার মধ্যে এই মন্ত্র ১০৮ বার জপ বুধ গ্রহ ভালো ফল দেয়।

বৃহস্পতি বীজ মন্ত্র : দেবগুরু বৃহস্পতির প্রভাবে জাতকের ধন প্রাপ্তি ঘটে, নিরোগ ও দীর্ঘায়ু প্রাপ্তি হয়, সৌভাগ্য লাভ হয়। এই বৃহস্পতিকে শক্তিশালী করার জন্য বৃহস্পতির বীজ মন্ত্র জপ করতে হয়। বৃহস্পতির বীজ মন্ত্র হল – ওঁ হ্রীং ক্লীং হুং বৃহস্পতয়ে। এই মন্ত্র ১৯০০০ বার জপের কথা বলা রয়েছে শাস্ত্রে। তবে আপনি যদি সময়ের অভাবে এতবার জব করতে না পারেন তাহলে রোজ ১০৮ বার জপ করুন। এই মন্ত্র জপের প্রশস্ত সময় হল সন্ধ্যেবেলা।

শুক্র বীজ মন্ত্র : শুক্র গ্রহ ধন ও ঐশ্বর্যের প্রতিনিধিত্ব করে। এই গ্রহ দুর্বল হলে আর্থিক পার্থিব সুখ থেকে বঞ্চিত থাকেন জাতক। তাই শুক্র কে শক্তিশালী করতে শুক্র বীজ মন্ত্র জব করতে হয়। শূক্রের বীজ মন্ত্রটি হল ওঁ হ্রীং শুক্রায়ঃ। শাস্ত্রে সকালবেলা ১৬০০০ বার জপের কথা বলা রয়েছে। তবে আপনি সময়ের অভাবে এই মন্ত্র ভোরবেলা ১০৮ বার জপ করতে পারেন। এই মন্ত্র জপের প্রশস্ত সময় হল ভোরবেলা সকালবেলা।

শনি বীজ মন্ত্র : শনি গ্রহকে কর্মফলদাতা গ্রহ বলা হয়। কোন ব্যক্তি যদি খারাপ কাজ করেন তাহলে শনিদেব তাকে শস্তি প্রদান করেন আবার ভাল কাজ করলে তাকে পুরস্ক‍ৃত করেন। যে ব‍্যক্তির ওপর শনি গ্রহের প্রভাব থাকে, তাকে তার জীবনে নানা ধরনের সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়। তার জীবন দুর্বিষহ হয়ে ওঠে। শনি গ্রহের প্রভাব থেকে রক্ষা পেতে তার বীজ মন্ত্র জপ করা উচিত। শনিগ্রহের বীজ মন্ত্রটি হল: ওঁ ঐং হ্রীং শ্রীং শনৈশ্চরায়ঃ। মন্ত্রী হলো অংশ শনিবার সন্ধ্যা বেলা ২৩০০০ বার জপ করার কথা বলা হয়েছে। তবে আপনি প্রত্যেক শনিবার সন্ধ্যা বেলা এই মন্ত্র ১০৮ বার জপ করবেন। এই মন্ত্র জপের প্রশস্ত সময় হলো শনিবার সন্ধ্যেবেলা।

রাহু বীজ মন্ত্র : জ্যোতিষ শাস্ত্রে রাহু কে একটি নিষ্ঠুর গ্রহ বলে প্রতিপন্ন করা হয়েছে। এটি একটি ছায়াগ্রহ। জন্ম কুণ্ডলীতে নির্দিষ্ট কিছু অবস্থান বাদ দিলে রাহু জাতকের জীবনে অনেক সমস্যা সৃষ্টি করে। রাহুর প্রভাবে জাতকের মানসিক চাপ বৃদ্ধি হয়, আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন হতে হয়, পারিবারিক অনেক সমস্যা সম্মুখীন হতে হয়। এই গ্রহের প্রভাব থেকে বাঁচতে তার বীজ মন্ত্র জপ করতে হয়। রাহুল বীজ মন্ত্রটি হল ওঁ ঐং হ্রীং রাহবে। শাস্ত্রে এই মন্ত্র ১৬০০০ বার জপের কথা বলা রয়েছে। তবে আপনি রোজ ১০৮ বার করে জপ করলেও সমান ফল পাবেন। আপনি শনিবার ও মঙ্গলবার অবশ্যই রাহুল বীজ মন্ত্র জপ করবেন। এই বীজ মন্ত্র জপের প্রশস্ত সময় হল সন্ধ্যাবেলায়।

কেতু বীজ মন্ত্র : রাহুর মতো কেতুও একটি ছায়া গ্রহ। কেতুর প্রভাবের ফলে জাতকের জীবনে অনেক সমস্যার সৃষ্টি হয়ে থাকে। কেতুর প্রভাবে জাতকের কর্ম জীবনে অনেক জটিলতার সৃষ্টি হয়। কেতু গ্রহকে শান্ত করতে কেতুর বীজ মন্ত্র অবশ‍্যই জপ করতে হয়। কেতুর বীজ মন্ত্র হল : ওঁ হ্রীং ঐং কেতবে। এই মন্ত্র ২২০০০ বার জপ করতে হয়। তবে আপনার সময়ের ঘাটতি থাকলে ১০৮ বার জপ করতে পারেন। রাহুর মত কেতুরও শনিবার ও মঙ্গলবার অবশ্যই কেতু বীজ মন্ত্র জপ করতে হবে এবং এই বীজ মন্ত্র জপের প্রশস্ত সময় হল সন্ধ্যাবেলায়।

নবগ্রহ বীজ মন্ত্র আপনারা প্রয়োজন মত পাঠ করবেন। গ্রহের শুভ প্রভাব আপনার ও আপনার পরিবারের সকলের ওপর থাকবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *