February 24, 2024

হনুমানজীকে সিঁদুর কেন অর্পন করা হয়?

Why is sindoor applied to Hanuman / Story of Hanuman Ji Behind offering Sindur / হনুমানজীকে সিন্দুর অর্পন করার পেছনে গল্প।


Story behind offering sindur to lord Hanuman
Jay Hanuman

হনুমানজীকে সিন্দুর অর্পন করার পেছনে এক গল্প রয়েছে? আপনি জানেন কি হনুমানজীর পূজায় আমরা হনুমানজীকে সিঁদুর অর্পন করি? এটি হনুমানজীকে প্রসন্ন করার Hanuman Chalisa পাঠ করার পাশাপাশি আর একটি অন্যতম উপাদান। অনেক জ্যোতিষী বা মন্দিরের পূজারীজী হনুমানজীকে সিন্দুর অর্পণ করতে বলেন। এর পেছনে একটি গল্প আছে। গল্পটি শুনলে আপনি হনুমানজীকে সিন্দুর অর্পনের কারন জানতে পারবেন। আসুন জেনেনি এই সিন্দুর  পেছনের গল্পটি কি?

 Story Behind Offering Sindur to Hanuman Ji :

একদিন সীতামা তিনি তাঁর সিঁথিতে সিন্দুর পরছিলেন। তখন হনুমানজী সীতা মাতাকে জিজ্ঞেস করলেন আপনি এটি কি পরছেন? এর তাৎপর্য কি? এর উওরে সীতা মাতা বলেন এটি সিন্দুর। এটি পরলে ওনার স্বামী রামজীর দীর্ঘায়ু হবেন। এবং উনি এতে প্রসন্ন হবেন। এই শুনে হনুমানজী সঙ্গে সঙ্গে তার গোটা শরীরে সিন্দুর মেখে নেয়। সীতা মাতা মুঁচকি হেসে জিজ্ঞেস করলেন যে হনুমান তোমার এই গোটা গায়ে সিন্দুর লাগানোর কারণ কি? হনুমানজী উওরে বললেন এক চুটকি সিন্দুরে যদি রামজী দীর্ঘায়ু হন এবং প্রসন্ন হন তবে উনি গোটা শরীরে সিন্দুর মেখেছেন এর ফলে রামচন্দের অমর হবেন এবং উনি আমার উপর আনেক প্রসন্ন হবেন,কারণ উনি গোটা শরীরে সিন্দুর মেখেছেন। এই গোটা গায়ে সিন্দুর মেখে তিনি রামচন্দ্রের সামনে উপস্থিত হলেন। রমজী হনুমানজীর এই কীর্তি দেখে খুব হাসতে লাগলেন সঙ্গে উনি হনুমানজীর তার উপর প্রেম দেখে খুব প্রসন্ন হয়ে তাকে গলায় জরিয়ে ধরেন। আর আশীর্বাদ করেন যেই হনুমানজীর পূজা করবেন সেই পূজা রামজীকেও অর্পিত হবে। সেই থেকেই হনুমানজীর পূজাতে সিন্দুর অর্পন করা হয়।

 

তাহলে আপনি হনুমানজীকে সিন্দুর অর্পনের কারণটি জানলেন। যে কোন ব্যক্তি যেকোন পরিস্থিতিতে হনুমানজীকে সিন্দুর অবশ্যই অর্পন করা উচিত। আমারা এই কলীযুগে সবাই কোন না কোন সমস্যার মধ্যে দিয়ে যাই। বলা হয় হনুমানজীকে সিন্দুর অর্পন করলে সকল সমস্যা দূর হয়ে থাকে। শনির সাড়ে সাতিও কেটে যায় শনিবার হনুমানজীকে সিন্দুর অর্পন করলে।তাই আপনি নিজ গৃহের মন্দিরে বা কোন মন্দিরে গিয়ে অবশ্যই সিন্দুর অর্পন করতে পারেন। এতে আপনার শনির সাড়ে সাতির মত সমস্যাও দূর হবে নিমিষে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *