February 24, 2024

হনুমান ও হনুমান পুত্র মকরধ্বজ

Did you know that Hanumanji had a son? / Hanuman and His son Makardhwaja – হনুমানজী ও তার পুত্র।


আপনি জানেন কি হনুমানজীর এক পুত্র সন্তানও ছিল। হ্যাঁ আপনি ঠিকই হনুমান ও হনুমান পুত্র মকরধ্বজ। জগত কল্যাণের সার্থে তাকে একবার যেমন বিবাহও করতে হয়েছিল তেমনি আপনি শুনলে অবাক হবেন ওনার মকরধ্বজ নামে এক পুএ সন্তানও ছিল। তবে দুটি ঘটনা একেবারেই আলাদা। আসুন জেনেনি হনুমান ও হনুমান পুত্র মকরধ্বজের গল্প।

Story of Hanuman and His son Makardhwaja :

হনুমানজী লঙ্কা দহনের পর তার ল্যাজ যখন সাগরে নেভাতে গেছিলেন তখন তার ল্যাজ থেকে এক টুকরো ঘাম জলে পড়ে। সেই ঘাম খেয়ে ফেলে এক মাছ এবং সেই মাছ গর্ভবতী হয়ে যায়। এর কিছুদিন পর রাবণ ভ্রাতা ও পাতাল রাজ অহিরাবণের সৈনিকরা মাছ ধরতে গিয়ে অজ্ঞাত ভাবেই ঐ মাছ টিকে ধরে আনে। সৈনিকরা ঐ মাছের পেট কাটাতে এক মানুষ রুপি বাণরের জন্ম হয়। পাতাল রাজ অহিরাবণ তাকে পাতালের দ্বার পালিকা হিসেবে নিযুক্ত করেন।

আহিরাবণ যখন ছলচাতুরি করে রামজী ও লক্ষনজীকে পাতালে আটক করে রাখে তখন হনুমান তাদের উদ্ধারের জন্য পাতালে পৌছলে পাতাল দ্বারে তার দেখা হয় মানুষরুপি সেই বানরের সঙ্গে। হনুমানজী তার পরিচয় জানতে চান। সেই মানুষ রুপি বানর বলেন “আমি হনুমান পুত্র মকরধ্বজ“। হনুমানজী অবাক হয়ে বললেন “আমিই হনুমান আর জিজ্ঞেস করেন আমিতো বাল ব্রহ্মচারী আমার পুত্র এলো কি করে”? উত্তরে মকরধ্বজ তার জন্ম বৃত্তান্ত খুলে বলেন। হনুমানজীর প্রথম পরিচয় পেলন তার নিজের পুত্রের।

এরপর হনুমানজী মকরধ্বজকে বলেন যে তার প্রভু রাম ও লক্ষনকে অহিরাবণ ছল করে বন্দি করে পাতালে আটক করে রেখেছে। তিনি তাদের মুক্ত করতে এসেছেন। কিন্তু মকরধ্বজ তাকে পাতালে যেতে বাধা দেন। মকরধ্বজ বলেন যে আপনি যেমন আপনার প্রভুর প্রতি দায়িত্বশীল তেমনি আমিও আমার প্রভুর প্রতি দায়িত্বশীল। আপনাকে আমি পাতালের দ্বার রক্ষক হিসেবে ভেতরে যেতে দিতে পারি না। হনুমানজীর অনেক বোঝাবার পরও যখন মকরধ্বজ রাজি হলেন না তখন হনুমানজী ও মকরধ্বজের মধ্যে শুরু হল ভীষন লড়াই। শেষমেশ হনুমানজী মকরধ্বজকে তার ল্যাজ দিয়ে বেঁধে পাতাল পুরিতে প্রবেশ করেন এবং অহিরাবণকে হত্যা করে রামজী ও লক্ষনজীকে সেখান থেকে মুক্ত করেন।

পরে হনুমানজী রামজীর সঙ্গে মকরধ্বজের পরিচয় করান এবং রামজী হনুমান পুত্র মকরধ্বজকে পাতালের রাজা করেন। এই ঘটনার বিবরণ রয়েছে বাল্মীকি রমায়নে

তাললে আমরা জানতে পারলাম হনুমান ও হনুমান পুত্র মকরধ্বজের কাহিনী। বাল ব্রহ্মচারী হনুমানজীর পুএ মকরধ্বজও ছিলেন তার পিতার মতই অসীম সাহসী ও কর্তব্যপরায়ণ। ভারতের অনেক জায়গাতেই মকরধ্বজের মন্দির রয়েছে। কোথাও কোথাও হনুমানজী ও মকরধ্বজ দুজনরই এক সাথে মন্দির রয়েছে। তারা দুজনেই এক সঙ্গে পূজিত হন। হনুমানজী ও মকরধ্বজের মন্দির আপনারা পাবেন গুজরাটের দ্বারকাতে হনুমান মকরধ্বজ মন্দির। কথিত আছে এখানেই হনুমানজী ও তার পুত্র মকরধ্বজের প্রথম সাক্ষাৎ হয়। এছাড়াও রাজস্থানের বেওয়াতে রয়েছে হনুমান মকরধ্বজ মন্দির। এই স্থান দর্শনে ভক্তদের রোগ মুক্তি হয় ও মনস্কামনা পূরণ হয়ে থাকে।

আরও পড়ুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *